Home / টেক নিউজ / সেলফিন (CellFin) অ্যাপস – ইসলামী ব্যাংক সেলফিন
Cellfin ইসলামী ব্যাংক

সেলফিন (CellFin) অ্যাপস – ইসলামী ব্যাংক সেলফিন

সেলফিন অ্যাপস্ (CellFin App) – নামটা হয়ত অনেকের কাছেই অপরিচিত আবার অনেকেই নামটা শুনেছেন। অনেকে হয়ত আবার ব্যবহারও করেছেন বাংলাদেশ ইসলামী ব্যাংকের আধুনিক ও একবিংশ শতাব্দীর সাথে মানানসই নিরাপদ ও ইউজার ফ্রেন্ডলী এই সেলফিন অ্যাপসটি।

আচ্ছা আপনি কি এমন কোনো অ্যাপের নাম শুনেছেন যেখানে আপনি একই সাথে মোবাইল ব্যাংকিং, অনলাইন ব্যাংকিং আবার সরাসরি ব্যাংকিং এর কাজগুলি করতে পারবেন?

কিংবা এমন কোনো অ্যাপসের নাম কি আপনার জানা আছে যেটি আপনাকে পৃথিবীর যেকোনো জায়গা থেকে যেকোনো সময় একাউন্ট খোলার সুবিধা দিয়ে থাকে?

আজকে আমরা যে অ্যাপসটি নিয়ে কথা বলবো তার নাম হচ্ছে CellFin App। বাংলাদেশ ইসলামী ব্যাংকের তত্ত্বাবধায়নে নির্মিত এই অ্যাপসটি শুধু যে একটি ছোট্ট অ্যাপ ব্যাপারটি কিন্তু তা নয়; এটিকে আপনি মোটামুটি একটি মিনি ব্যাংক একাউন্ট হিসেবে চিন্তা করতে পারেন। যেখানে আপনি একই সাথে অর্থের লেনদেন করার পাশাপাশি করতে পারবেন অনলাইন ব্যাংকিং এবং মোবাইল ব্যাংকিংও।

তাই আর দেরি না করে চলুন জেনে নেওয়া যাক কিভাবে আপনি এই অ্যাপসটি ব্যবহার করতে পারবেন এবং কি কি সুবিধা আপনি পেতে পারেন এই অ্যাপসটি থেকে।

CellFin Apps এ একাউন্ট তৈরি করার প্রয়োজনীয় বিষয়াবলী

CellFin অ্যাপে একাউন্ট করার জন্য আপনার কাছে ৩টি জিনিস থাকা অত্যন্ত প্রয়োজন।

১। একটি অ্যান্ড্রোয়েড মোবাইল ফোন
২। একটি মোবাইল নাম্বার
৩। আপনার জাতীয় পরিচয় পত্র (NID)

মোটামুটি এই ৩টি জিনিস থাকলেই পৃথিবীর যেকোনো প্রান্ত থেকে আপনি খুব সহজেই মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্যে বাংলাদেশ ইসলামী ব্যাংকের তৈরি করা এই আধুনিক মোবাইল অ্যাপটি ডাউনলোড করে আপনার প্রয়োজনে ব্যবহার করতে পারবেন।

CellFin একাউন্ট তৈরি করার নিয়মাবলী

উপরে যা যা কিছু বলেছি, সব কিছু হাতের কাছে নিয়ে বসেছেন তো! তো চলুন এবার একাউন্ট তৈরি করার পালা।

১। সর্ব প্রথম আপনাকে গুগল প্লে স্টোর থেকে CellFin অ্যাপটি ডাউনলোড করতে হবে।

২। ডাউনলোড সম্পন্ন হওয়ার পরে অ্যাপটিতে প্রবেশ করে সর্ব প্রথম আপনাকে Registration ক্লিক করতে হবে। অতপর আপনাকে আপনার ১১ ডিজিটের মোবাইল নাম্বারটি এবং ৬ ডিজিটের একটি গোপন নাম্বার প্রদান করতে হবে।

৩। আপনার মোবাইল নাম্বারে একটি ৬ডিজিটের OTP বা Verification Code পাঠানো হবে। সেটি সঠিকভাবে অ্যাপের মধ্যে প্রদান করবেন।

৪। এবার আপনাকে আপনার জাতীয় পরিচত্রের (NID) সম্মুখপৃষ্ঠ এবং পশ্চাৎপৃষ্ঠের দু’টি স্পষ্ট ছবি তুলতে হবে। খেয়াল রাখবেন ছবিগুলো যেন অবশ্যই স্পষ্টভাবে আসে। ভুলেও কোনো রকম ঝাপসা কিংবা অস্পষ্ট ছবি তোলা যাবে না।

৫। জাতীয় পরিচত্রটি (NID) সাবমিট করার পরে অ্যাপটি অত্যন্ত সুন্দরভাবে আপনার সকল তথ্যাবলী দেখাবে। যদি কোথাও কোনোরূপ ভুল থেকে থাকে, অবশ্যই সেটি সংশোধন করে নিবেন (আপনার জাতীয়পত্রে ঠিক যেভাবে আছে, সেভাবে রাখবেন)। আপনার প্রফেশন এবং আপনার বর্তমান ঠিকানাটি ম্যানুয়ালি অ্যাপের মধ্যে লিখে দিবেন।

৬। আপনাকে এখন একটি সেলফি তুলতে হবে। তবে অবশ্যই মনে রাখবেন চোখে সানগ্লাস দিয়ে কিংবা কোনো স্টাইলিস্ট স্টাইলে দাড়িঁয়ে ছবি তোলা যাবে না। আপনার জাতীয় পরিচয় পত্রের সাথে যদি আপনার ছবিটি না মিলে তাহলে কিন্তু অনেক ক্ষেত্রে ভেরিফিকেশনের সময় সমস্যা হতে পারে। অবশ্যই খেয়াল রাখবেন আপনার সর্ম্পূণ মুখমন্ডলটি (কান সহ) স্পষ্টভাবে দেখা যাচ্ছে কি না।

৭। আপনার ইমেইল অ্যাড্রেস এবং একটি রেফারেন্স নাম্বার ব্যবহার করুন। যদি আপনার চেনা পরিচিত কারো কোনো ধরনের রেফারেন্স নাম্বার আপনার কাছে না থেকে থাকে তাহলে চাইলে আপনি সেটি নাও ব্যবহার করতে পারেন। তবে ব্যবহার করলে অনেক সময় আপনি এবং যার রেফারেন্স ব্যবহার করছেন তিনি, ২৫ টাকা পর্যন্ত একটি বোনাস পেয়ে যাবেন। তবে এই অফারটি সব সময় থাকে কি না কিংবা বর্তমান সময়ে আছে কি না সেটিও আমার জানা নেই। তবে চাইলে ব্যবহার করতে পারেন।

মোটামুটি এই ৭টি স্টেপ পার হওয়ার পরে আপনাকে একটি Congratulation Message দেওয়া হবে এবং সেখানে আপনাকে বলা হবে যে ২৪ ঘন্টার মধ্যেই আপনার একাউন্টটি একটিভ করে দেওয়া হবে। কিন্তু সাধারনত ৩ কর্মদিবসের মতো সময় আপনাকে ধরে নিতে হবে এবং আশা করা যায় যে এর মধ্যে তারা অবশ্যই আপনার একাউন্টটি একটিভ করে দিবে।

CellFin অ্যাপের গুরুত্বর্পূণ কিছু বৈশিষ্ট্য

CellFin App
CellFin App

CellFin অ্যাপের বৈশিষ্ট্য এবং এর ব্যবহার নিয়ে কিছু কথা না বললেই নয়। চমৎকার এই অ্যাপসটিতে অসাধারন কিছু বিষয় নিয়ে এসেছে বাংলাদেশ ইসলামী ব্যাংক। যা কি না অন্যান্য সবার মতো মনে হলেও সত্যিকার অর্থে অনেকটাই আলাদা; যেটি আপনি অ্যাপসটি ব্যবহার না করলে বুঝতেই পারবেন না।

তো চলুন জেনে নেওয়া যাক CellFin অ্যাপের কিছূ গুরুত্বর্পূণ বৈশিষ্ট্য সর্ম্পকে যা কিনা আপনার কর্মব্যস্ততাময় দিনকেও করে তুলবে অনেকটা প্রশান্তিতে ভরপুর কিংবা পরিবর্তন করে ফেলতে পারে আপনার সাপ্তাহিক কিংবা মাসিক রুটিনকেও।

CellFin দিয়ে Add Money করার উপায়

CellFin অ্যাপে আপনি চাইলে Add Money করতে পারবেন। অর্থ্যাৎ অন্য কোনো আর্থিক মাধ্যম থেকে আপনি চাইলে আপনার CellFin একাউন্টে টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন।

CellFin অ্যাপে মোটামুটি ৪টি মাধ্যম থেকে আপনি Add Money করতে পারবেন। সেগুলো হলো:

১। IBBL Account
২। Debit Card
৩। Khidmah Card
৪। MCASH

মোটামুটি এই ৪টি মাধ্যম থেকে আপনি খুব সহজেই সরাসরি আপনার CellFin অ্যাপে টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন।

১। IBBL Account

বাংলা ইসলামী ব্যাংক লিমিটেড এর যেকোনো ধরনের একাউন্ট থেকে আপনি চাইলে সরাসরি আপনার CellFin অ্যাপে টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন। এখানে উল্লেখ্য যে, যেহেতু আপনি CellFin অ্যাপটি ব্যবহার করছেন এবং আপনার যদি বাংলাদেশ ইসলামী ব্যাংকে কোনো রকম একাউন্ট নাও থাকে তাহলেও আপনি চাইলে বাংলাদেশে ইসলামী ব্যাংকে একাউন্ট করেছে এমন যে কারো কাছ থেকে সরাসরি আপনার CellFin একাউন্টে টাকা আনতে পারবেন।

২। Debit Card

আমার মতে এটি CellFin অ্যাপের একটি অন্যতম সুবিধা। আপনি চাইলে যেকোনো ডেবিট কার্ড থেকে সরাসরি আপনার CellFin একাউন্টে টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন। এক্ষেত্রে একই কথা; আপনি যার একাউন্ট থেকে আপনার CellFin একাউন্টে টাকা ট্রান্সফার করছেন আপনার যদি কোনোরূপ একাউন্ট নাও থেকে থাকে তাহলে কোনো সমস্যা নেই। আপনি নির্দ্বিধায় টাকা ট্রান্সফার করতে সক্ষম হবেন।

৩। Khidmah Card

বাংলাদেশ ইসলামী ব্যাংকের একটি অন্যতম ক্রেডিট কার্ড হচ্ছে এই Khidmah Card। আপনি চাইলে সরাসরি এই Khidmah Card থেকেও আপনার CellFin একাউন্টে টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন। এখানেও একই কথা খাটে যে, আপনার যদি (যে ব্যক্তি CellFin অ্যাপ ব্যবহার করছেন) কোনো রকম Khidmah Card একাউন্ট নাও থেকে থাকে তবুও আপনি আপনার CellFin একাউন্টে মাত্র কয়েক মিনিটের মধ্যেই টাকা ট্রান্সফার করে নিতে পারবেন।

৪। MCASH

বিকাশ, রকেট কিংবা নগদের মতো বাংলাদেশের আরো একটি অত্যন্ত জনপ্রিয় মোবাইল ব্যাংকিং মাধ্যম হচ্ছে MCASH। অনেক সময় আমাদের সরাসরি MCASH থেকে CellFin একাউন্টে টাকা ট্রান্সফার করার প্রয়োজন পড়তে পারে। সেই সময় আপনি কিন্তু চাইলেই খুব সহজেই আপনার CellFin একাউন্টে MCASH থেকে সরাসরি কোনোরূপ ঝামেলা ছাড়াই টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন। আশা করি এবার আর বলে নেওয়ার কোনো প্রয়োজন নেই যে আপনি সারা বাংলাদেশের যেকোনো MCASH একাউন্ট থেকে আপনার CellFin একাউন্টে টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন কোনো MCASH একাউন্ট খোলার ঝামেলা করা ছাড়াই।

আশা করি CellFin অ্যাপের মাধ্যমে Add Money এর বিষয়টি আপনারা সবাই অত্যন্ত সুন্দরভাবে বুঝতে সক্ষম হয়েছেন।

CellFin দিয়ে Fund Transfer করার উপায়

Add Money সুবিধার পাশাপাশি CellFin কিন্তু আমাদেরকে Fund Transfer করারও সুযোগ করে দিচ্ছি। শুধু তাই নয় ঘন্টার পর ঘন্টা লাইনে দাড়িঁয়ে ব্যাংকে গিয়ে টাকা জমা দেওয়ার কিংবা Fund Transfer করার কোনো দরকারই পড়বে না যদি আপনার একটি CellFin একাউন্ট থাকে।

Cellfin Fund Transfer
Cellfin Fund Transfer

CellFin একাউন্ট থেকে কোন কোন মাধ্যমে Fund Transfer করা যায় সেটি নিচে দেওয়া হলো।

১। IBBL Account
২। Another CellFin Account
৩। Another Bank Account
৪। Send Via QR Code

মূলত উপরের ৪টি মাধ্যমে আপনি বর্তমানে সরাসরি আপনার CellFin একাউন্টের মাধ্যমে ফান্ড ট্রান্সফার করতে পারবেন।

১। IBBL Account

বাংলাদেশ ইসলামী ব্যাংকের যেকোনো একাউন্টে আপনি সরাসরি চাইলে আপনার CellFin একাউন্ট থেকে টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন। ভেবে দেখুন বিষয়টা কতোটা সহজ করে দেওয়ার চেষ্টা করেছে বাংলাদেশ ইসলমাী ব্যাংক।

ধরুন কোনো বিশেষ মুর্হূতে আপনার এখন এই মুর্হূতে ক্যাম্পাসের ফি জমা দিতে হবে। কিন্তু আপনি বর্তমানে যেখানে আছেন তার আশেপাশে কোথাও বাংলাদেশ ইসলামী ব্যাংকের কোনো শাখা নেই। সেই সময় কিন্তু আপনি চাইলেই খুব সহজেই আপনার CellFin একাউন্ট থেকে আপনার ক্যাম্পাসের IBBL একাউন্টে টাকা জমা দিয়ে দিতে পারবনে।

২। Another CellFin Account

জরুরী মুর্হূতে যদি এমন হয় যে আপনার পরিচিত কারো এখন এই মুর্হূতে কিছু টাকা প্রয়োজন। কিন্তু সেই মুর্হূতে আপনার কাছে কোনো ক্যাশ টাকা নেই। সমস্ত টাকা আপনার ব্যাংকে আপনি জমা দিয়ে দিয়েছেন। কাল-পরশু ব্যাংকও বন্ধ। সেই কঠিন মুর্হূতে আপনার এখন এই সচেতনতাময় মুর্হূতে তৈরি করে রাখাটা CellFin একাউন্টটি আপনাকে সহযোগীতা করতে পারে।

মাত্র কয়েকটি ক্লিকের মাধ্যমে আপনার IBBL Account থেকে টাকাটি আপনার CellFin একাউন্টে টাকাটি ট্রান্সফার করে সেখান থেকে খুব সহজেই আপনি চাইলে আপনার সেই প্রিয়জনকে টাকাটি পাঠিয়ে দিতে পারেন তার CellFin একাউন্টে। কোনো রকম ঝামেলা কিংবা সমস্যা ছাড়াই।

৩। Another Bank Account

যদি এমন হয় যে আপনি যেই প্রিয়জনকে টাকাটি পাঠাতে চাচ্ছেন তার যেমন একদিকে কোনো CellFin একাউন্ট নেই তেমনি তার বাংলাদেশ ইসলামী ব্যাংকেও কেনো একাউন্ট করা হয় নি। তখন কি করবেন? সেই বিষয়টিকেই মাথায় রেখে CellFin আপনাকে বাংলাদেশের যেকোনো ব্যাংকে মুর্হূতের মধ্যে টাকা ট্রান্সফার করার সুবিধা দিচ্ছে। তাই প্রয়োজনের সময় প্রিয় বন্ধুটি বিশ্বাসঘাতক হলেও CellFin সব সময় থাকবে আপনার পাশে।

৪। Send Via QR Code

ডিজিট বা নাম্বার মানুষের মস্তিষ্ক খুব একটা বেশি সময় ধরে মনে রাখতে পারে না এবং অনেক সময়ই ভুলে যায়। শুধু তাই নয়, দেখে দেখে নাম্বার টুকে নেওয়ার সময়ই ভুল করে একটা ডিজিটের কিংবা সংখ্যার হেরফেরের কারনে আপনার সারাজীবনের সঞ্চয় করা টাকা আপনার ছেলের একাউন্টে যাওয়ার পরিবর্তে চলে যেতে পারে অপর পাশের কোনো অজানা অচেনা অপরিচিত মানুষের কাছে। ব্যস্, তারপর থেকেই আপনাকে আবার সেটা নিয়ে বেশ উদ্বিগ্ন ও চিন্তিত হতে হবে।

তাই আপনাদের সুবির্ধাথে এবং নিরাপত্তার কথা বিবেচনা করে আপনি চাইলে QR Code স্ক্যান করার মাধ্যমেও খুব সহজেই CellFin এর ফান্ড ট্রান্সফার করার সুবিধাটি উপভোগ করতে পারবেন।

আশা করি CellFin অ্যাপের ফান্ড ট্রান্সফার করার বিষয়টি সর্ম্পকে আপনাদের মধ্যে বেশ ভালো একটি ধারনা তৈরি হয়েছে।

CellFin একাউন্ট দিয়ে Mobile Top-Up করার উপায়

Cellfin Mobile Recharge
Cellfin Mobile Top-Up ইসলামী ব্যাংক

মোবাইলে রিচার্জ করার সুবিধাটি নেই এমন মোবাইল ব্যাংকিং সিস্টেম মনে হয় বর্তমানে নেই। তাই যুগের সাথে তাল মিলিয়ে CellFin নিয়ে এসেছে মোবাইল রিচার্জ করার সুবিধাটি। বাংলাদেশের যেকোনো মোবাইল নাম্বারে কিংবা যেকোনো মোবাইল অপারেটরে আপনি আপনার পচ্ছন্দ মতো মোবাইল রিচার্জ করতে পারবেন।

শুধু তাই নয়. প্রি পেইড ও পোস্ট পেইড – দুই ধরনের সিমের জন্যেই আপনি চাইলে মোবাইল রিচার্জ নিতে পারবেন। তাই জরুরী প্রয়োজনে ঘরের বাহিরে বের হওয়ার খুব একটা প্রয়োজন হবে না আপনার। বর্তমান অবস্থানে থেকেই কিংবা ঘরে বসেই আপনি আপনার মোবাইল ফোনটি রিচার্জ করে ফেলতে পারবেন।

CellFin একাউন্ট দিয়ে Merchant Payment করার উপায়

ডিজিটাল বাংলাদেশের হাওয়া যে শুধু ব্যাংকিং জগতেই লেগেছে ব্যাপারটি কিন্তু তা নয়। ছোট থেকে বড় কিংবা মাঝারী, সব ধরনের ব্যবসায়ীরাই বর্তমানে Merchant Payment সার্পোট করে থাকে। তাই আপনার যেকোনো ধরনের পেমেন্ট আপনি চাইলে কিন্তু খুব সহজেই আপনার প্রিয় CellFin একাউন্ট দিয়ে করে ফেলতে পারবেন।

শুধু তাই নয়, আপনি নিজেও যদি একজন ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী কিংবা উদ্যোক্তা হয়ে থাকেন তাহলে আপনিও কিন্তু চাইলেই খুব সহজে CellFin এর মাধ্যমে আপনার ক্রেতাদের কাছ থেকে পণ্যের মূল্য সংগ্রহ করতে পারেন।

CellFin একাউন্ট দিয়ে Cash Withdraw করার উপায়

ধরুন আপনি দূরে কোথাও বেড়াতে গিয়েছেন। হঠাৎ সেখানে আপনার নগদ কিছু টাকার প্রয়োজন পড়লো। কিন্তু ভুলবশত আপনার এটিএম কার্ডটি আপনি আপনার বাসায় ফেলে এসেছেন। সেই সময় কিন্তু আপনি চাইলেই খুব সহজে এই CellFin একাউন্টের মাধ্যমে বাংলাদেশ ইসলামী ব্যাংকের যেকোনো এটিএম বুথ থেকে সহজেই টাকা উত্তোলন করতে পারবেন।

অর্থ্যাৎ বিপদে বন্ধুর মতো এটিএম কার্ডের বিকল্প হিসেবে কিন্তু আপনি এই CellFin অ্যাপটিকে ব্যবহার করতে পারেন।

শুধু তাই নয়, আপনি যে শুধুমাত্র এর মাধ্যমে আপনার CellFin একাউন্টের ব্যালেন্স উইথড্র করতে পারবেন ব্যাপারটি কিন্তু তা নয়। আপনি চাইলে খুব সহজেই এই CellFin অ্যাপের মাধ্যমে আপনার কার্ড কিংবা বাংলাদেশ ইসলামী ব্যাংক একাউন্ট থেকেও সরাসরি টাকা উইথড্র দিতে পারবেন।

শুধু তাই নয়, যে ব্যক্তির কোনো একাউন্টই নেই তার কাছেও কিন্তু আপনি চাইলে সরাসরি CellFin অ্যাপের মাধ্যমে টাকা পাঠাতে পারবেন। ধরুন আপনি চাচ্ছেন আপনার পরিচিত কোনো একজন ব্যক্তিকে টাকা পাঠানোর জন্য। কিন্তু সমস্যাটি হচ্ছে যাকে টাকা পাঠাতে চাচ্ছেন তার কোনো CellFin, MKASH কিংবা বাংলাদেশ ইসলামী ব্যাংকের একাউন্ট নেই। এমনকি ধরুন তার কোথাও কোনো ব্যাংক একাউন্টই নেই।

তাকেও কিন্তু আপনি চাইলে খুব সহজেই আপনার CellFin একাউন্টের মাধ্যমে টাকা পাঠাতে পারবেন। শুধুমাত্র একটি গোপন কোড নাম্বারের মাধ্যমে অপর প্রান্তের ব্যক্তিটি (যাকে আপনি টাকাটি পাঠাতে চাচ্ছেন) বাংলাদেশ ইসলামী ব্যাংকের যেকোনো এটিএম বুথ কিংবা ব্রাঞ্চ থেকে সরাসরি টাকাটি তুলে নিতে পারবেন। সহজ না অনেক!

CellFin একাউন্ট দিয়ে Bill Payment করার উপায়

ধরুন মাস শেষ। আপনার ব্যাংকে যাওয়ার সময় হচ্ছে না। কিন্তু আপনার বাংলাদেশ ইসলামী ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড অর্থ্যাৎ খিদমাহ্ কার্ডের বিল পেমেন্ট করার সময় চলে এসেছে। সেই সময় কিন্তু আপনি চাইলেই খুব সহজেই মাত্র কয়েকটি ক্লিকের মাধ্যমে আপনার CellFin একাউন্ট দিয়ে খিদমাহ্ কার্ডের বিল পেমেন্ট করে দিতে পারবেন।

কোনো রকম ঝামেলা ছাড়াই, ব্যাংকে না গিয়েই বাসায় কিংবা অফিসে বসেই মাত্র কয়েকটি ক্লিকের মাধ্যমে আপনি চাইলে কিন্তু খুব সহজেই আপনার খিদমাহ্ কার্ড কিংবা ক্রেডিট কার্ডের বিলটি মিটিয়ে দিতে পারবেন।

দেখেছেন আপনার জীবনকে কতোটা সহজ করে ফেলতে পারে গুগল প্লে স্টোরের এই একটি মাত্র অ্যাপস!

CellFin একাউন্ট দিয়ে Request Money করার উপায়

ধরুন খুব প্রয়োজনের সময় আপনার বন্ধু-বান্ধব, আত্নীয়-স্বজন কিংবা পরিবার-পরিজনের কারো কাছ থেকে আর্জেন্টভাবে কিছু টাকার দরকার। আপনি কিন্তু চাইলে সেই সময় CellFin একাউন্টের মাধ্যমে আপনার পরিচিত মানুষটির কাছে Request Money পাঠাতে পারেন এবং তিনি যদি আপনার রিকোয়েস্টটি একসেপ্ট করে থাকে তাহলে মাত্র কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই আপনার একাউন্টে টাকাটি চলে আসবে।

তবে এক্ষেত্রে একটি বিষয় উল্লেখ্য যে Request Money করার সুযোগটি শুধুমাত্র তারাই পাবেন যাদের ইতোমধ্যেই CellFin একাউন্ট রয়েছে। আপনি সেক্ষেত্রে চাইলে আপনার QR Code শেয়ার করার মাধ্যমে লেনদেনের নিরাপত্তা আরো জোরদার করতে পারেন।

তবে কোনোরূপ কার্ড কিংবা ব্যাংক একাউন্টে আপনি সরাসরি এ ধরনের Request Money করতে পারবেন না। তবে Add Money করার সুযোগটি আপনার জন্য কিন্তু এখনও রয়েছে; যার মাধ্যমে আপনি চাইলে সরাসরি আপনার পরিচিত কারো বাংলাদেশ ইসলামী ব্যাংক একাউন্ট কিংবা ডেবটি কার্ড, খিদমাহ্ কার্ড থেকে টাকা ট্রান্সফার করতে পারবেন।

CellFin একাউন্ট দিয়ে Remittance গ্রহন করার উপায়

আমাদের দেশের প্রায় ১ কোটি প্রবাস যোদ্ধা দিন রাত পরিশ্রম করে আমাদের দেশের অর্থনীতির চাকা সচল রেখেছেন। এমনও দূর দূরান্তের অজ-পাড়াগাঁয়ে এমন অনেক মানুষ রয়েছেন যাদের ছেলে কিংবা স্বামী প্রবাসে রয়েছেন। মাসের শুরুতে টাকা পাঠালে সেটি আনার জন্য তাদের আবার মাইলের পর মাইল পথ হেঁটে পাড়ি দিতে হয়।

সেই সমস্ত রেমিট্যান্স যোদ্ধাদের পরিবারের কথা বিবেচনা করে CellFin অ্যাপের মাধ্যমে আপনি কিন্তু চাইলেই খুব সহজেই সেই রেমিট্যান্স গ্রহন করতে পারেন। বিশেষ কোনো ঝামেলা ছাড়াই মাত্র কয়েকটি স্টেপ ফলো করেই কিন্তু আপনি এই সুবিধাটি গ্রহন করতে পারছেন।

CellFin একাউন্ট দিয়ে Bank Account এড করার উপায়

CellFin একাউন্ট দিয়ে আপনি চাইলে খুব সহজেই আপনার বাংলাদেশ ইসলামী ব্যাংক একাউন্টটি যুক্ত করে রাখতে পারেন। এমন অনেক সময় হয় যে আপনার ব্যাংক একাউন্টের মাধ্যমে আর্জেন্টলি কিছু টাকা কোথাও জমা দেওয়ার দরকার। সেই সময় কিন্তু আপনি চাইলে খুব সহজেই আপনার ব্যাংক একাউন্টটি অ্যাপে এড করে রাখার মাধ্যমে যেকোনো সময় যেকোনো জায়গায় আপনার ব্যাংক একাউন্ট দিয়ে যখন তখন যেমন টাকা ঢুকাতে পারবেন একই রকমভাবে টাকা বেরও করতে পারবেন।

এই সুবিধাটি যদিও অনেক ব্যাংকের অ্যাপই এই ধরনের সুবিধা দিয়ে থাকে কিন্তু CellFin এর মাধ্যমে আপনি যতোটা সহজে এবং নিরাপদভাবে কাজটি সুন্দরভাবে সম্পন্ন করতে পারবেন এমনটা কিন্তু অন্যান্য ক্ষেত্রে খুব একটা দেখা যায় না।

CellFin একাউন্ট এর Card এর সুবিধা

আপনি জানেন কি CellFin একাউন্ট এর সাথে সাথে আপনি কিন্তু একটি ভার্চুয়াল ভিসা কার্ডও পাচ্ছেন। অর্থ্যাৎ এই কার্ডের মাধ্যমে আপনি যেকোনো ধরনের লেনদেন সম্পন্ন করতে পারবেন অনলাইনে এবং অফলাইনে।

ধরুন আপনার কোনো একটি পণ্য পচ্ছন্দ হয়েছে অনলাইনে। কিন্তু আপনার কাছে সেই পণ্যটি কেনার জন্য যে ধরনের কার্ড প্রয়োজন তার একটাও নেই। সেই সময় কিন্তু আপনি চাইলে আপনার CellFin একাউন্টের ব্যালেন্স দিয়ে সরাসরি সেই ভার্চুয়াল ভিসা কার্ডের মাধ্যমে অনলাইনে কিংবা অফলাইনে যেকোনো ধরনের পেমেন্ট সম্পন্ন করতে পারবেন।

CellFin App টি ফ্রিল্যান্সারদের জন্য কতোটা জরুরী?

বাংলাদেশ এ ফ্রিল্যান্সিং এর চাহিদা দিন দিন বেড়েই চলেছে। CellFin অ্যাপটি সরাসরি ফ্রিল্যান্সারদের জন্য ততোটা গুরুত্বর্পূণ না হলেও, আমরা যদি ভিন্নভাবে একটু চিন্তা করি তাহলে CellFin App টি বেশ ভূমিকা রাখতে পারে আমাদের দেশের ফ্রিল্যান্সাারদের জন্য। CellFin অ্যাপের মাধ্যমে আপনি চাইলে সরাসরি Western Union, Moneygram এর মতো করে Remittance হিসেবে আপনার অর্জিত অর্থটি দেশে আনতে পারবেন।

তাছাড়া ভার্চুয়াল ভিসা কার্ডের মাধ্যমে আপনি চাইলে সরাসরি ইন্টারন্যাশনাল যেকোনো ইকর্মাস সাইট কিংবা মার্কেটপ্লেস থেকে যেকোনো ধরনের প্রোডাক্ট কিংবা সার্ভিস কিনতে পারবেন।

CellFin অ্যাপের অন্যান্য সুবিধা সমূহ

CellFin অ্যাপের সুবিধা-সমূহগুলো আসলে বলে বুঝানো সম্ভব নয়। তবে ছোট করে ২/১ টি কথা বলি যেগুলো মূলত CellFin অ্যাপের ভিতরে গেলে আপনি দেখতে পারবেন।

CellFin অ্যাপের মধ্যে আপনি কিন্তু চাইলে যেকোনো ধরনের Statement তৈরি করতে পারেন। এটি যে শুধু আপনার CellFin একাউন্টের স্টেটমেন্ট রাখবে ব্যাপারটি কিন্তু এমন নয়। আপনি যদি এখানে আপনার ব্যাংক একাউন্টটিকেও এড করে রাখেন তাহলে সেটিও কিন্তু আমার এখানে প্রদর্শিত হবে।

আপনার কোন দিন কবে কোথায় কতো টাকা লেনদেন হয়েছিল ইত্যাদি সকল ধরনের তথ্য কিন্তু আপনি এখান থেকে দেখতে পারবেন।

তাছাড়াও এখানে একটি স্ক্যানের সুবিধা আছে যেটি দিয়ে আপনি আপনার প্রয়োজনীয় যেকোনো ডকুমেন্ট কিংবা বিষয়বস্তুকে স্ক্যান করে আপনার CellFin অ্যাপ সর্ম্পকিত ব্যাংকিং কাজে ব্যবহার করতে পারবেন।

CellFin অ্যাপের কিছু অসুবিধা সমূহ

চাদেঁরও কলঙ্ক আছে বলে একটা কথা আছে। সেখানে CellFin অ্যাপেরও যে কিছু অসুবিধা থাকবে না ব্যাপারটি তা নয়। প্রথমমত, অ্যাপটি এখনও সর্ম্পূণভাবে তৈরি করা শেষ হয় নি। তাই অনেক অপশনই রয়েছে যেগুলো হয়ত এখনও সর্ম্পূণভাবে তৈরি নয়।

তাছাড়া অ্যাপসটির ইউজার ইন্টারফেজটিও এখন পুরোপুরিভাবে ইউজার ফ্রেন্ডলীভাবে তৈরি করা হয় নি। তবে আশা করা যাচ্ছে খুব শীঘ্রই ইনশাল্লাহ্ বিষয়গুলো সমাধান হয়ে যাবে এবং আমরা বেশ সুন্দর ও চমৎকার একটি অ্যাপস দেখতে পারবো।

শেষ কথা

বাজারে অনেক অনেক অ্যাপ রয়েছে। মোবাইল ব্যাংকিং থেকে শুরু করে একদম সরাসরি ব্যাংকিং পর্যন্ত কাজ করার জন্য অনেক অনেক অ্যাপ আপনি হয়ত এখন এই মুর্হূতে গুগল প্লে স্টোরে সার্চ করলে পেয়ে যাবেন।

কিন্তু মোবাইল ব্যাংকিং, অনলাইন ব্যাংকিং ও ব্যাংকিং এর বিষয়গুলিকে একত্রে ব্যবহার করার মতো অ্যাপ বা সিস্টেম এখন পর্যন্ত খুব বেশি একটা নেই। তার মধ্যে ব্যবহারকারীর নিরাপত্তা ও সৌন্দর্যবোধের বিষয়গুলোও এক্ষেত্রে লক্ষণীয়।

তাই সবার উদ্দেশ্যেই বলবো, অন্তত একবার হলেও আমি মনে করবো আপনার এই CellFin অ্যাপটি ব্যবহার করা উচিত। একবার ব্যবহারেই দেখুন না কি হয়! হয়তো আপনার জীবনধারা কিংবা সাপ্তাহিক বা মাসিক রুটিনকেই পরিবর্তন করে দিতে পারে এই ছোট্ট অ্যাপসটি

One comment

  1. ধন্যবাদ এত উপকারী একটি পোস্ট শেয়ার করার জন্য আমি যদিও ইসলামী ব্যাংকের একজন গ্রাহক কিন্তু এই CellFin app সম্পর্কে আমার জানা ছিল না ফারুক স্যারের এই আর্টিকেলটি পড়ে আমার কাছে খুবই ভালো লেগেছে এবং আমি আজকেই CellFin অ্যাপটি ইন্সটল করব ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *