Home / এসইও / এসইও স্ট্যাটিসটিক্স (SEO Statistics) ২০২১
seo statistics

এসইও স্ট্যাটিসটিক্স (SEO Statistics) ২০২১

এসইও সম্পর্কে বর্তমানে একটি কথা প্রায়ই শোনা যাচ্ছে “SEO is Dead”। সত্যিই কি তাই? এসইও কি সত্যিই এখন আর কাজ করে না? মানুষ কি আর এখন সত্যিই গুগলকে ব্যবহার করছে না তাদের দৈনন্দিন জীবনে?

এই প্রশ্নের উত্তর জানার জন্য আমরা আজকে এসইও এর কিছু অতি গুরুত্বপূর্ণ স্ট্যাটিসটিকস জানার চেষ্টা করবো। বোঝার চেষ্টা করবো সত্যিই এসইও এর সমাপ্তি ঘটতে চলেছে নাকি আরো দুর্বার গতিতে সামনের অদূর ভবিষ্যতে এসইও নিয়ে আমাদের কাজ করার আরো সুযোগ তৈরি হওয়ার প্রশস্ত পথ তৈরি হচ্ছে।

তো চলুন এবার জেনে নেওয়া এসইও সম্পর্কিত কিছু গুরুত্বপূর্ণ স্ট্যাটিসটিকসসমূহ।

কিছু গুরুত্বর্পূণ এসইও স্ট্যাটিসটিকসসমূহ

  • প্রায় ৬৮% মানুষের অনলাইন এক্সপেরিয়ান্সটা কিন্তু শুরু হয় সার্চ ইঞ্জিনের মাধ্যমেই। (BrightEdge)
  • মাত্র ০.৭৮% মানুষ গুগলের ২য় পেজের কোনো একটি সার্চ রেজাল্টে ক্লিক করে থাকে। এই ব্যাপারে একটি খুব মজার কৌতুক আছে এসইও ইন্ডাস্ট্রিতে। বলা হয়ে থাকে কোনো লাশকে গুম করার জন্য পৃথিবীর সবচেয়ে নিরাপদ জায়গা হচ্ছে গুগলের ২য় পেজ। (Backlinko)
  • গড়ে পৃথিবীর প্রায় সব ওয়েবসাইটেরই ৫৩.৩% ট্রাফিক বা ভিজিটর কিন্তু আসে সেই সার্চ ইঞ্জিনের মাধ্যমেই। (BrightEdge)
  • প্রায় ৯২.৯৬% গ্লোবাল ভিজিটর আছে শুধুমাত্র গুগল সার্চ, গুগল ইমেজ আর গুগল ম্যাপ থেকে। (Sparktoro)
  • অর্গানিকভাবে সোশ্যাল মিডিয়ার ভিজিটরের তুলনায়  শুধুমাত্র এসইও পারে প্রায় ১০০০%+ এর বেশি ভিজিটর আপনার ওয়েবসাইটে নিয়ে আসতে। (BrightEdge)
  • প্রায় ৬৯.৭% কীওর্য়াডের শব্দের এর সংখ্যা প্রায় ৪ এর বেশি। (Ahrefs)
  • ৬০% মার্কেটাররা স্বীকার করেন যে, ইনবাউন্ড মার্কেটিং চ্যানেলেগুলো (এসইও, ব্লগ কনটেন্ট ইত্যাদি) সবেচেয় বেশি কাস্টমার নিয়ে আসতে পারে আপনার বিজনেসের জন্য। (HubSpot)
  • এসইও এর মাধ্যমে বিভিন্ন বিজনেসগুলো যে পরিমাণে কাস্টমার পায় তার মাত্র ১৪.৬% কাস্টমার হয়ত তাদের সার্ভিস বা প্রোডাক্ট শেষ পর্যন্ত কিনেন না। কিন্তু বাকিরা সবাই প্রায় কাস্টমারে পরিণত হয়। (HubSpot)
  • ৪৯% মার্কেটারের রির্পোট থেকে দেখা গিয়েছে যে তাদের ROI (Return on Investment) এর দিক দিয়ে হিসাব করলে অর্গানিক সার্চের থেকে তাদের সবচেয়ে বেশি লাভ হয়েছে। (Search Engine Journal)
  • প্রায় ৫৩% আমেরিকান নাগরিক কোনো পণ্য কেনার আগে সেটি সর্ম্পকে সার্চ ইঞ্জিনে একটু যাচাই বাছাই করে নেয়। (Google)
  • একজন ভালো মানের এসইও এক্সপার্টের বাৎসরিক আয় প্রায় ৬০.৫ হাজার ইউ এস মার্কিন ডলার পর্যন্ত হতে পারে। (Backlinko)

কি অবাক হলেন! আসলে অবাক হওয়ার কিছু নেই। এসইও এমনই! সারা পৃথিবীর যতোগুলি ওয়েবসাইট আছে তার মধ্যে ৯০.৬৩% (Ahrefs) ওয়েবসাইট গুগল থেকে কোনো ভিজিটরই পায় না।

অর্থ্যাৎ সারা ইন্টারনেট দুনিয়ার সমস্ত অর্গানিক ভিজিটর ৯.৩৭% ওয়েবসাইট দখল করে বসে আছে। তাহলে বাকিদের তো মনে হওয়াই স্বাভাবিক যে এসইও বোধহয় এখন আর কাজ করে না।

কারন সেই ৯.৩৭% ওয়েবসাইটের মধ্যে আসতে গেলে তো আপনাকে সঠিকভাবে এসইও ট্রেনিং নিতে হবে।

যাই হোক, যারা আবার আমরা এসইও নিয়ে কিছুটা আশাবাদী, আমাদের মধ্যে আবার অনেকেই আছেন যারা এসইও বলতে শুধুমাত্র গুগলকেই বুঝে থাকেন। তাদের ধারনা এসইও বলতে মূলত শুধুমাত্র গুগলের ১ম পেজে র‌্যাংকিং করানোকেই বুঝানো হয়ে থাকে।

সত্যি কথা বলতে আসলে বিষয়টা এমন নয়। গুগল ছাড়াও আরো অনেক সার্চ ইঞ্জিন রয়েছে। কিন্তু পুরো সার্চ ইঞ্জিন জগতে গুগলের ভিজিটরের পরিমাণ এতো বেশি যে অন্যগুলোর কথা আমরা খুব একটা মনেও রাখি না।

World’s Ranking সার্চ ইঞ্জিনের দিক থেকে ২য় নাম্বারে থাকা Bing.Com এর সবচেয়ে বেশি সার্চ করা শব্দের নাম হচ্ছে Google। আশা করি Google এর জনপ্রিয়তা কতটুকু সেটা আমরা বুঝতে পারছি।

তো চলুন সেই গুগলের কিছু অতি গুরুত্বপূর্ণ স্ট্যাটিসটিকস সম্পর্কে আজকে জেনে নেওয়া যাক।

গুগল সর্ম্পকিত কিছু গুরুত্বর্পূণ স্ট্যাটিসটিকসসমূহ

  • পৃথিবীর সেরা সার্চ ইঞ্জিনে গুগলের CTR Rate প্রায় ৩১.৭%। (Backlinko)
  • একটা সমীক্ষা করে দেখা গিয়েছে যে গুগলে প্রায় প্রতিদিন ৩.৫ বিলিয়ন কুয়েরী সার্চ করা হয়ে থাকে। (Internet Live Stats)
  • গুগলের প্রায় ২০০ এরও বেশি রাংকিং সিগন্যাল বা রাংকিং ফ্যাক্টর রয়েছে। (Backlinko)
  • বর্তমান সময়ে গুগল প্রায় পুরো সার্চ ইঞ্জিন মার্কেটের একাই ৮৬% দখল করে বসে আছে। (Statista)
  • গুগলের ১ম পেজের প্রথম রেজাল্টটি প্রায় ৩২% ক্লিক পেয়ে থাকে। (Backlinko)
  • গড়ে গুগলের ১ম পেজের ১ম সার্চ রেজাল্টটিতে প্রায় ১৪৪৭ শব্দের কনটেন্ট লেখা হয়ে থাকে। (Backlinko)
  • গুগলের ১ম পেজে যেসব ওয়েবসাইট রাংক করে তাদের ৬০% এরই বয়স প্রায় ৩ বছরের বেশি। (Ahrefs)
  • গুগলের সিনিয়র সার্চ কোয়ালিটি স্ট্রাটেজিস্ট Andrey Lipattsev বলেন লিংক, কনটেন্ট ও রাংকব্রেইন গুগলের ৩টি বড় রাংকিং ফ্যাক্টর। (Search Engine Watch)
  • প্রায় ৫৯.২% অর্গানিক সার্চ ট্রাফিকের পুরোটাই গুগলের দখলে। (Sparktoro)
  • প্রতিদিন প্রায় ৩.৫ বিলিয়ন ব্যবহারকারী গুগলকে তাদের দৈন্দদিন কাজে ব্যবহার করছেন। (Moz)
  • সাধারন ব্যবহারকারীরা প্রায় ৯৪% ক্লিকই গুগলের অর্গানিক রেজাল্টে করে থাকেন। (Ardor SEO)
  • একটা সমীক্ষা থেকে দেখা গিয়েছে, ডেস্কটপ থেকে যারা সার্চ ইঞ্জিন ব্যবহার করে তাদের মধ্যে ৭৫.৫% ইউজারই Google ব্যবহার করে, ৯.৮% Bing, ৯.৫% Baidu আর ২.৮% Yahoo ব্যবহার করে। (NetMarketShare)
  • প্রতি সেকেন্ডে গুগলে প্রায় ৭৫ হাজার বার সার্চ হচ্ছে। (Internet Live Stats)
  • অর্গানিকভাবে গুগলে প্রায় ৩০০% এরও বেশি ট্রাফিক পাওয়া সম্ভব সোশ্যাল মিডিয়া থেকে। (IronPaper)
  • একটা স্ট্যাডি থেকে দেখা গিয়েছে যে প্রায় ৯১% ওয়েবসাইটই গুগলে থেকে অর্গানিকভাবে কোনো ট্রাফিক বা ভিজিটর পায় না। (Ahrefs)
  • Google, Bing, Yahoo YouTube – এদের কাছে পুরো ইন্টারনেট দুনিয়ার প্রায় ৭০.৬% ট্রাফিক রয়েছে। (NetMarketShare)

এই হচ্ছে মোটামুটি এসইও এবং গুগল সম্পর্কে আমাদের আলোচনা। এবার আপনার কাছে আমাদের প্রশ্ন, “আপনার কাছে কি মনে হয় “SEO is Dead” এই কথাটির গ্রহণযোগ্যতা আসলে কতটুকু?”

কমেন্ট করে আমাদের জানাবেন আপনার মূল্যবান মতামতটি। পোস্টটি কেমন লাগলো সেটিও অবশ্যই আমাদের কমেন্ট এর মাধ্যমে জানাবেন। ভালো লাগলে নিজের বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না। কেননা তাদেরও তো জানা উচিত যে এসইও বলে কিছু একটা এই পৃথিবীতে।

সবাই ভালো থাকবেন, সুস্থ্য থাকবেন। দেখা হবে আগামী কোনো পোস্টে। আল্লাহ্ হাফেজ।

Check Also

Google Search Console

গুগল সার্চ কনসোল – ডোমেন প্রোপার্টি vs ইউআরএল প্রিফিক্স

223shares Love This Facebook LinkedIn Print ​অনেক ওয়েবসাইটের মালিক রয়েছেন যারা এখনও পর্যন্ত Google Search …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *