Home / রিভিউ / সেরা ওয়েব হোস্টিং কোম্পানি (দেশীয় ও ইন্টারন্যাশনাল)
Best Web Hosting Company

সেরা ওয়েব হোস্টিং কোম্পানি (দেশীয় ও ইন্টারন্যাশনাল)

ওয়েব হোস্টিং কি?

হোস্টিং (Hosting) হচ্ছে ভার্চুয়াল স্পেস বা জায়গা যেখানে মানুষ তার ওয়েবসাইট এবং ওয়েবসাইটের যাবতীয় তথ্য সংরক্ষন করে। কোন ওয়েবসাইট বানানোর জন্য এটি অন্যতম প্রধান পুর্বশর্ত। হোস্টিং ছাড়া কোন সচল ওয়েবসাইট কল্পনাই করা যায় না।

আপনার হাতের মোবাইল ফোনে যেমন একটি মেমোরি কার্ড থাকে যেখানে আপনার মোবাইলের সমস্ত ফাইল (যেমন: ছবি, ভিডিও, অডিও ইত্যাদি) রাখা হয়, ঠিক তেমনি একই রকমভাবে আপনার ওয়েবসাইটের সকল ফাইলও কোনো না কোনো একটি ওয়েব হোস্টিং বা ওয়েব সার্ভারে রাখা হয়ে থাকে।

ওয়েব হোস্টিং এর প্রয়োজনীয়তা

প্রশ্নটা আসলে একটু শুনতে একটু অন্য রকম শোনায়। কিভাবে? আচ্ছা বলি শুনুন, একদম সহজ করে চিন্তা করুন। আপনি ধরে নিন আপনি বাস্তব জীবনে একটি দোকান দিচ্ছেন। সেক্ষেত্রে আপনি দোকানটি নিশ্চয়ই কোনো বড় শপিং মলে কিংবা পাড়ার মোড়ে অথবা বাজারের কোথাও দিবেন।

একটু চিন্তা করে দেখুন। যখনই আপনি একটি দোকান দেওয়ার কথা চিন্তা করছেন, তখনই কিন্তু আপনার দোকানের জায়গাটি কোথায় হবে কিংবা দোকানটি আপনি কোথায় বসাবেন সেটি নিয়ে আপনাকে ভাবতে হচ্ছে।

অনলাইনে কিংবা ইন্টারনেটের দুনিয়ায় আমাদের অনলাইন দোকানটি (বা আপনার ওয়েবসাইটটি) যদিও আপনি কিংবা চোখের সামনে দেখতে পাই না কিংবা হাত দিয়ে ছুঁয়ে দেখতে পারি না।

কিন্তু তবুও বাস্তব জীবনে দোকানের মালামাল কিংবা পণ্যগুলো রাখার জন্য যেমন একটি জায়গা কিংবা ঘর আমাদের প্রয়োজন ঠিক একই রকমভাবে অনলাইনেও কিন্তু আমাদের পণ্যের ছবি কিংবা ভিডিওগুলি রাখার জন্যেও একটি ওয়েব সার্ভার বা একটি ওয়েব হোস্টিং থাকা প্রয়োজন।

তা নাহলে যখন আপনি আমার এই Md Faruk Khan – ওয়েবসাইটটি ব্রাউজ করছেন, তখন কিভাবে এই লেখাগুলো আপনার সামনে প্রদর্শিত হচ্ছে? এই লেখাগুলো এই ছবিগুলো তো আপনার মোবাইলে রাখা নেই। তাহলে?

এগুলো আমার ওয়েবসাইটটি যে ওয়েব সার্ভারে হোস্ট করে রাখা হয়েছে সেখানে রয়েছে। আপনার ব্রাউজার আপনার চোখের সামনে মূলত সেখান থেকেই এই ছবি কিংবা টেক্সটগুলিকে প্রদর্শন করছে।

হোস্টিং মূলত ডোমেইন ও ডোমেইন এর অন্তর্গত বিভিন্ন কনটেন্ট ধারন করে ও দেশ বিদেশের ভিজিটরদের দেখতে সাহায্য করে। বর্তমানে বিভিন্ন দেশি বিদেশি কোম্পানি হোস্টিং প্রোভাইডার হিসাবে কাজ করে যাচ্ছে।

সেগুলোর ভিতর রয়েছে বিভিন্ন ক্যাটগরিতে বিভক্ত। আজ আমরা সেরা ১১ টি ওয়েব হোস্টিং কোম্পানি সম্পর্কে জানব যা নতুন তথা পুরনো ওয়েবসাইট নির্মাতা দের জন্য সেরা।

বর্তমানে বিভিন্ন প্রকার হোস্টিং বাজারে পাওয়া যায়। সেগুলো হল- ক্লাউড হোস্টিং, শেয়ার্ড হোস্টিং, ভিপিএস হোস্টিং, রিসেলার হোস্টিং, ডেডিকেটেড হোস্টিং ইত্যাদি। ব্যবহারকারীরা তাদের চাহিদা অনুযায়ী এসকল হোস্টিং কিনে থাকে। বড় বড় ওয়েবসাইটের জন্য রয়েছে বড় ধরনের প্লান আবার ছোট ওয়েব সাইটের জন্য রয়েছে ছোট প্লান।

হোস্টিং প্লান গুলো মূলত চাহিদা অনুযায়ী সাজানো হয়ে থাকে। সাধারণত মাসিক, বাৎসরিক, দ্বিবার্ষিক, ইত্যাদি সময় অনুযায়ী হোস্টিং কেনা যায়। পেমেন্ট মেথড এ ও থাকে ভিন্নতা।

ইন্টারন্যাশনাল হোস্টিং সার্ভিস প্রোভাইডারের জন্য রয়েছে পেপাল, পেওনিয়ার, ভিসা কার্ড, ক্রেডিট কার্ড ইত্যাদি ব্যবস্থা। আবার দেশীয় হোস্টিং সার্ভিস প্রোভাইডারের জন্য রয়েছে বিকাশ, নগদ, বিভিন্ন ব্যাঙ্কের পেমেন্ট ব্যবস্থা।

পেমেন্ট ব্যবস্থার কারনে এখন দেশীয় হোস্টিং সার্ভিস প্রোভাইডার দের জনপ্রিয়তা বাড়ছে। অধিকন্তু বর্তমানে দেশীয় হোস্টিং সার্ভিস প্রোভাইডার অনেক ভালো সার্ভিস দিচ্ছে।

ইন্টারন্যাশনাল ওয়েব হোস্টিং সার্ভিস কোম্পানি

ইন্টারন্যাশনাল অনেক কোম্পানি রয়েছে যারা খুব ভালো এবং নির্ভরযোগ্য হোস্টিং সার্ভিস প্রোভাইড করে থাকে। কিন্তু সব কোম্পানি গুলো যে ভালো তা নয়। বেশ কিছু মাপকাঠিতে পরিমাপ করা যায় কোন হোস্টিং কোম্পানি ভাল কোনটি খারাপ।

অবশ্যই ওয়েব হোস্টিং কেনার ক্ষেত্রে এই বিষয় গুলো মাথায় রাখা উচিত। আসুন জেনে নেই কিছু সনামধন্য ওয়েব হোস্টিং কোম্পানির বিষয়ে।

১। HostGator (হোস্টগেটর)

HostGator

বর্তমান সময়ে সেরা কিছু হোস্টিং প্রোভাইডারের ভিতর অন্যতম এই ওয়েব হোস্টিং প্রোভাইডার কোম্পানিটি। এদের সার্ভিসের তুলনায় মুল্য সামঞ্জস্যপুর্ন ও তুলনামুলক কম হওয়ায় দিন দিন জনপ্রিয়তার শীর্ষে এরা জায়গা করে নিচ্ছে। প্রফেশনালদের প্রথম পছন্দের তালিকায় হোস্টগেটর অন্যতম ।

ওয়েবসাইট: hostgator.com

ফিচারঃ

  • ৪৫ দিনের মানিব্যাক গ্যারান্টি।
  • সার্ভারের-আপটাইম গ্যারান্টি 99.9%
  • আনলিমিটেড ব্যান্ডউইথ
  • আনলিমিটেড স্টোরেজ
  • ফ্রি ডোমেইন, ওয়েবসাইট, স্ক্রিপ্ট, এবং মাইএসকিউএল পরিবর্তনের সুবিধা
  • ডস এবং অন্যান্য হ্যাকিং প্রতিরোধক ফায়ারওয়াল
  • ফ্রি এস. এস. এল.
  • সার্বক্ষণিক কাস্টমার সাপোর্ট ফোন, টিকিট ও লাইভ চ্যাট এর মাধ্যমে
  • ২.৫ গুন ফাস্ট সার্ভার, অটো ব্যাকআপ ও রিকভার সিস্টেম
  • স্বয়ংক্রিয় ভাবে ম্যালওয়্যার অপসারণ
  • সহজেই ওয়ার্ডপ্রেস, জুমলা, ও অন্যান্য এপ্লিকেশন স্থাপন, ইত্যাদি.

এছাড়াও আরো কিছু ফিচার রয়েছে যেগুলো হোস্টগেটর কে সর্বজনগ্রাহী ও জনপ্রিয় করে তুলেছে। উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহারের ফলে সার্ভারের আপটাইম অনেক ভালো। ফলে সার্ভার ডাউন কম হয়। পারফরমেন্স, সার্ভারের স্পিড ও সুরক্ষা ব্যবস্থা অনেক ভালো হওয়ায় এটি ব্যবহারকারীদের প্রথম পছন্দ হয়ে উঠছে।

২। Hostinger (হোস্টিঙ্গার)

Hostinger

হোস্টিঙ্গার আরেকটি তুমুল জনপ্রিয় একটি ওয়েব হোস্টিং কোম্পানি। সারা বিশ্বের অগণিত ব্যবহারকারী রয়েছে এ হোস্টিং কোম্পানির। বিশ্বজুড়ে এদের ৭ টি ডাটা চেন্টার রয়েছে যেগুলো এদের নিরবিচ্ছিন্ন সেবা নিশ্চিত করে। বেশ কিছু আকর্ষনীয় ফিচার হোস্টিঙ্গার কে দিয়েছে অন্য মাত্রা। দিন দিন এর চাহিদা ও ব্যবহার বেড়েই চলেছে।

ওয়েবসাইট: hostinger.com

ফিচারঃ

  • ৩০ দিনের মানিব্যাক গ্যারান্টি।
  • সার্ভারের-আপটাইম গ্যারান্টি 99.9৯%
  • আনলিমিটেড ব্যান্ডউইথ
  • আনলিমিটেড স্টোরেজ
  • আনলিমিটেড সাব-ডোমেইন
  • ড্রাগ এন্ড ড্রপ ওয়েবসাইট বিল্ডার
  • ফ্রি ডোমেইন, ওয়েবসাইট, স্ক্রিপ্ট, এবং মাইএসকিউএল পরিবর্তনের সুবিধা
  • আনলিমিটেড ইমেইল একাউন্ট
  • সার্বক্ষণিক কাস্টমার সাপোর্ট ফোন, টিকিট ও লাইভ চ্যাট এর মাধ্যমে
  • ফার্স্ট লোডিং টাইম
  • স্বয়ংক্রিয় ভাবে ম্যালওয়্যার অপসারণ
  • সহজেই ওয়ার্ডপ্রেস, জুমলা, ও অন্যান্য এপ্লিকেশন স্থাপন, ইত্যাদি.

হোস্টিঙ্গার তাদের কিছু ব্যতিক্রমধর্মী ফিচার ও অবিশ্বাস্য পারফর্মেন্স এর জন্য অনেক প্রতিদ্বন্দীদের টপকে প্রথম সারিতে অবস্থান করে নিয়েছে। ক্রমেই এটি আরও সমৃদ্ধ হচ্ছে এবং সেরা হয়ে উঠছে

৩। Bluehost (ব্লুহোস্ট)

Bluehost

২০০৩ সালে যাত্রা শুরু করে ব্লুহোস্ট খুব দ্রুত জনপ্রিয়তার অন্যতম নিদর্শন হয়েছে। খুব অল্প দিনেই চলে এসেছে প্রথম সারির ওয়েব হোস্টিং কোম্পানির ক্যাটাগরিতে। বিশ্বস্ততা ও নির্ভর যোগ্যতার মাপকাঠিতে নিজেকে প্রমানিত করে হয়ে উঠেছে আস্থার প্রতীক। বেশ কিছু ভিন্নধর্মী ফিচার ও অবিরাম পারফরমেন্স ব্লুহোস্ট কে করেছে অনন্য।

ওয়েবসাইট: bluehost.com

ফিচারঃ

  • সহজবোধ্য সি-প্যানেল
  • প্রচুর এড-অন টুলস
  • ফ্রি ওয়েবসাইট বিল্ডার
  • ফ্রি বিজনেস ইমেইল
  • ৯৯.৯৯% আপটাইম
  • কম সময়ে ওয়েবসাইট লোডিং
  • ফ্রি এস. এস. এল.
  • দুর্দান্ত নিরাপত্তা বলয়
  • অবিরাম কাস্টমার সাপোর্ট
  • ক্লাউডফেয়ার সি. ডি. এন.
  • ৩০ দিনের মানিব্যাক গ্যারান্টি
  • ফ্রি ডোমেইন(শর্ত সাপেক্ষ)

তুলনামুলক অনেক কম সময়ে ব্লুহোস্ট সেরা হয়ে ঊঠেছে তাদের দুর্দান্ত সেবা ও অপরিসীম শ্রম দিয়ে। নিশ্চিন্তে অগণিত গ্রাহক ব্যবহার করছে তাদের সেবা। ব্লুহোস্ট এর গ্রাহকদের মন্তব্য ও রেটিং ই বলে দেয় তারা কতটা ভালো ওয়েব হোস্টিং সার্ভিস প্রোভাইডার।

৪। SiteGround (সাইট গ্রাউন্ড)

SiteGround

জনপ্রিয় ওয়েব হোস্টিং এর কথা আসলে সাইট গ্রাউন্ড এর কতা বলতেই হয়। সাইট গ্রাউন্ড অন্যান্য জনপ্রিয় হোস্টিং প্রোভাইডারের মত বিশ্বাসযোগ্য একটি কোম্পানি। এর বেশ কিছু ফিচার এর কারনে দিন দিন বহুল ব্যবহার হচ্ছে।

ওয়েবসাইট: siteground.com

ফিচারঃ

  • আনলিমিটেড ব্যান্ডউইথ
  • 99.998% আপটাইম
  • কম সময়ে ওয়েবসাইট লোডিং
  • ফ্রি এস. এস. এল.
  • ফ্রি সাইট ট্রান্সফার
  • আনলিমিটেড ডাটা ট্রান্সফার
  • ফ্রি বিজনেস ইমেইল
  • ফ্রি ওয়েবসাইট ব্যাক আপ
  • সহজবোধ্য সি-প্যানেল
  • শক্তিশালী নিরাপত্তা বলয়
  • ২৪*৭ কাস্টমার সাপোর্ট
  • ৩০ দিনের মানিব্যাক গ্যারান্টি

সাইট গ্রাউন্ড ভালো মানের হোস্টিং সেবা নিশ্চিত করায় এদের চাহিদা অন্যান্য কোম্পানিদের তুলনায় বেশি। অন্যান্য কোম্পানিতে যেখানে কিছু কিছু পরিষেবা চড়া মুল্যে কিনতে হয় সেটা সাইট গ্রাউন্ডে ফ্রি। এগুলোই মূলত সাইট গ্রাউন্ড কে এগিয়ে রেখেছে।

৫। DreamHost (ড্রিম হোস্ট)

DreamHost

হোস্টিং প্রোভাইডার জগতে আর একটি উজ্জ্বল নাম ড্রিম হোস্ট। অন্যান্য কোম্পানির সাথে পাল্লা দিয়ে নিজেদের শ্রেষ্ঠত্ব প্রমানে বদ্ধ পরিকর ড্রিম হোস্ট। এদের ফিচার ও পারফর্মেন্স এগিয়ে রেখেছে অনেক কোম্পানি থেকে। তুলনামুলক কম মুল্যে সেরা পরিষেবা দিয়ে যাচ্ছে ড্রিম হোস্ট।

ওয়েবসাইট: dreamhost.com

ফিচারঃ

  • আনলিমিটেড ব্যান্ডউইথ
  • ১০০% আপটাইম
  • কম সময়ে ওয়েবসাইট লোডিং
  • ফ্রি এস. এস. এল.
  • হুইসগার্ড সহ ফ্রি ডোমেইন
  • আনলিমিটেড ডাটা ট্রান্সফার
  • আনলিমিটেড সাইট হোস্টিং
  • ডি ডস প্রোটেকশন
  • ফ্রি ওয়েবসাইট ব্যাক আপ
  • সহজবোধ্য সি-প্যানেল
  • শক্তিশালী নিরাপত্তা বলয়
  • ২৪*৭ ডেডিকেটেড কাস্টমার সাপোর্ট
  • ৯৭ দিনের মানিব্যাক গ্যারান্টি

ড্রিম হোস্ট এর সিকিউরিটি এবং অন্যান্য সুযোগ সুবিধা করে তুলেছে জনপ্রিয়তার শীর্ষে। নিঃসন্দেহে ড্রিম হোস্ট সেরা হোস্টিং কোম্পানি গুলোর একটি।

বাংলাদেশের সেরা ৬টি ওয়েব হোস্টিং সার্ভিস কোম্পানি

আন্তর্জাতিক কোম্পানি গুলোর সাথে পাল্লা দিয়ে বাংলাদেশেও গড়ে উঠেছে বেশ কিছু ভালো ওয়েব হোস্টিং কোম্পানি। এগুলো আন্তর্জাতিক কোম্পানির চেয়ে কোন অংশে কম নয়। কিছু কোম্পানি আবার দেশের গন্ডি পেরিয়ে বিভিন্ন দেশে সার্ভিস দিয়ে চলেছে। ক্রমেই হয়ে উঠছে আন্তর্জাতিক ব্রান্ড। দেশীয় অনেক কোম্পানির ভিড়ে উল্লেখযগ্য কিছু ভাল কোম্পানি হল-

১। ExonHost (এক্সনহোস্ট)

ExonHost

এক্সনহোস্ট দেশীয় হোস্টিং সার্ভিস প্রোভাইডার দের ভিতরে অন্যতম একটি কোম্পানি। দেশীয় হলেও ইতিমধ্যে অনেক সুনাম অর্জন করেছে। সার্ভিসের ক্ষেত্রে ইন্টারন্যাশনাল প্রোভাইডারের চেয়ে কোন অংশে কম নয়। স্বল্প সময়ে কুড়িয়েছে পর্যাপ্ত সুনাম ।

ওয়েবসাইট: exonhost.com

ফিচারঃ

  • ৯৯.৯% আপটাইম গ্যারান্টি
  • ফ্রি এস. এস. এল.
  • টপ প্লান এর সাথে ফ্রি ডোমেইন
  • ব্যান্ডউইথ ৫০ জিবি থেকে আনলিমিটেড
  • ফ্রি সাইট ট্রান্সফার
  • অটো ইন্সটলার
  • ফ্রি ইন্সট্যান্ট সেটাপ
  • ডেডিকেটেড কাস্টমার সাপোর্ট
  • সহজ সি-প্যানেল
  • এস. এস. ডি. সার্ভার
  • ফাস্ট লোডিং স্পিড
  • দেশীয় ও আন্তর্জাতিক পেমেন্ট ব্যবস্থা
  • ৩০ দিনের মানিব্যাক গ্যারান্টি
  • লাইট স্পীড ওয়েব সার্ভার

সার্ভিস বিবেচনায় এটি কোন অংশে আন্তর্জাতিক কোম্পানি থেকে কম নয়। অসাধারন সাপোর্ট কোম্পানিটিকে আরো জনপ্রিয় করে তুলছে দিন দিন। সহজেই পেমেন্ট করা যায় তাই কেনা ও ব্যবহার করা সহজ।

২। ITHostBD (আইটি হোস্ট বিডি)

ITHostBD

আইটি হোস্ট বিডি আরেকটি জনপ্রিয় হোস্টিং সার্ভিস প্রোভাইডার। র‍্যাঙ্কিং বিবেচনা করলে এটি বাংলাদেশের সেরা পাঁচটি ওয়েব হোস্টিং কোম্পানির একটি। অত্যন্ত সুল্ভ মুল্যে এবং খুব সহজেই কিনতে পারা যায় পছন্দসই হোস্টিং প্লান।

ওয়েবসাইট: ithostbd.com

ফিচারঃ

  • এস ই ও ফ্রেন্ডলি উচ্চ গতির সার্ভার
  • উচ্চ গতির লোডিং স্পিড
  • ফ্রি এস. এস. এল.
  • ডেডিকেটেড কাস্টমার সাপোর্ট
  • উচ্চ গতি সম্পন্ন এস এস ডি টেকনোলজি
  • সি ডি এন সাপোর্ট
  • ৯৯.৯% আপটাইম গ্যারান্টি
  • ডি ডস প্রোটেকশন
  • ফ্রি ওয়েবসাইট ট্রান্সফার
  • ১৫ দিনের মানিব্যাক গ্যারান্টি

আইটি হোস্ট বাংলাদেশ বা আইটি হোস্ট বিডি অত্যন্ত নির্ভরযোগ্য একটি কোম্পানি। যে কেউ খুব সহজেই এখান থেকে হোস্টিং কিনতে পারে। সার্ভিসের তুলনায় মুল্যে সস্তা। দুর্দান্ত কাস্টমার সাপোর্ট এবং অসাধারন পার্ফরমেন্স সেবা আসলেই প্রশংসনীয়।

৩। iIT Host (আই আই টি হোস্ট)

iIT Host

সুলভ মুল্যে সর্বোত্তম সেবা নিশ্চিত লক্ষ্য নিয়ে আই আই টি হোস্ট যাত্রা শুরু করে এই কোম্পানিটি। ক্রমেই সেরা কোম্পানি দের কাতারে জায়গা করে নিয়েছে এটি। সার্বক্ষনিক নজরদারিতে রয়েছে সেরা কাস্টমার সাপোর্ট, নিরবিচ্ছিন্ন আপটাইম, ও সেরা পার্ফরমেন্স এর মত সুযোগ সুবিধা।

ওয়েবসাইট: iithost.com

ফিচারঃ

  • ৯৯.৯% আপ টাইম গ্যারান্টি
  • ১-১০০ জিবি এস. এস. ডি ডিস্ক স্পেস
  • আনলিমিটেড ব্যান্ডউইথ
  • ফ্রি এস. এস. এল.
  • আনলিমিটেড এড অন ডোমেইন
  • ফ্রি সাপ্তাহিক ব্যাকআপ
  • ফ্রি সাইট বিল্ডার
  • দেশীয় পেমেন্ট মেথড
  • ২৪/৭ কাস্টমার কেয়ার
  • ৩০ দিনের মানিব্যাক গ্যারান্টি
  • বিজনেস ইমেইল
  • ফ্রি ওয়েবসাইট ট্রান্সফার ও ডোমেইন ট্রান্সফার
  • অত্যাধুনিক সি-প্যানেল

বিশ্বাস যোগ্যতার দিক থেকে আই আইটি হোস্ট অনেক বেশি এগিয়ে। সেরা সার্ভিসে বদ্ধ পরিকর এই কোম্পানির সেবা নিশ্চিন্তে নিতে পারেন কোন ঝামেলা ছাড়াই।

৪। XeonBD (জিয়ন বিডি)

XeonBD

বর্তমানে সেরা উদীয়মান ওয়েব হোস্ট কোম্পানি গুলোর মধ্যে জিয়ন বিডি নামের এ কোম্পানিটি ক্রমাগত ভালো করে যাচ্ছে। গতানুগতিক সাধারণ কোম্পানির চেয়ে এটি অনেক ভালো মানের একটি হোস্টিং প্রোভাইডারে পরিনত হচ্ছে।

ওয়েবসাইট: xeonbd.com

ফিচারঃ

  • ৯৯.৯% আপ টাইম গ্যারান্টি
  • ৫ জিবি থেকে ১ টেরাবাইট ব্যান্ডউইথ
  • স্টোরেজ ১০০ জিবি পর্যন্ত
  • ফ্রি এস. এস. এল.
  • ফ্রি সাপ্তাহিক ব্যাকআপ
  • দেশীয় পেমেন্ট মেথড
  • ২৪/৭ কাস্টমার কেয়ার
  • ৩০ দিনের মানিব্যাক গ্যারান্টি
  • ফ্রি ওয়েবসাইট ট্রান্সফার ও ডোমেইন ট্রান্সফার
  • অত্যাধুনিক সি-প্যানেল

ফিচার ও অন্যান্য সুযোগ সুবিধা আন্তর্জাতিক ওয়েব হোস্টিং এর মত হওয়ায় এটি অনেকের ভিতর অন্যতম একটি কোম্পানি। নিঃসন্দেহে এটি সেরা ৫ টির একটি ওয়েব হোস্টিং কোম্পানি।

৫। Dianahost (ডায়ানাহোস্ট)

Dianahost

বাংলাদেশ ভিত্তিক ওয়েব হোস্টিং কোম্পানি গুলোর ভিতর ডায়ানাহোস্ট অন্যতম একটি কোম্পানি। বিশ্বাসযোগ্য, নির্ভরযোগ্য এবং নিরবিচ্ছিন্ন সার্ভিস কোম্পানিটিকে অন্যতম জনপ্রিয় কোম্পানি করে তুলেছে। কোম্পানিটির গ্রাহক সংখ্যা ক্রমেই বেড়ে চলেছে তাদের সার্ভিসের কোয়ালিটির জন্য।

ওয়েবসাইট: dianahost.com

ফিচারঃ

  • ৯৯.৯% আপ টাইম গ্যারান্টি
  • ২০০ মেগাবাইট থেকে ১০০০ জিবি স্টোরেজ
  • ৫ জিবি থেকে আনলিমিটেড ব্যান্ডউইথ
  • ১০ থেকে আনলিমিটেড FTP একাউন্ট
  • ফ্রি এস. এস. এল.
  • ফ্রি সাপ্তাহিক ব্যাকআপ
  • দেশীয় পেমেন্ট মেথড
  • ২৪/৭ কাস্টমার কেয়ার
  • ৩০ দিনের মানিব্যাক গ্যারান্টি
  • ফ্রি ওয়েবসাইট ট্রান্সফার ও ডোমেইন ট্রান্সফার
  • অত্যাধুনিক সি-প্যানেল

ক্রমেই কোম্পানিটি তাদের পরিষেবার পরিসর ও মান বাড়িয়ে চলেছে। দেশের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক অঙ্গনেও সেবা দেওয়া শুরু করেছে।

৬। Web Host BD (ওয়েব হোস্ট বিডি)

Web Host BD

বাংলাদেশের ওয়েব হোস্টিং জগতে সেই প্রথম থেকে এখন পর্যন্ত মোটামুটি রেপুটেশন বজায় রেখে কাজ করে যাচ্ছে এমন কোম্পানীর তালিকা করা হলে ওয়েব হোস্ট বিডির স্থান সেখানে অবশ্যই থাকবে।

এই কোম্পানীর সবচেয়ে ভালো দিক হচ্ছে এদের বিশ্বস্ততা। এখন পর্যন্ত যতোবার এদের সাথে আমার কাজ করার সুযোগ হচ্ছে মোটামুটি বেশ ভালোই সার্পোট এবং সার্ভিস পেয়েছি।

ব্যক্তিগতভাবে আমার সাথে তারা এমনটি করেছে কি না কিংবা তারা আসলেই এই রকম সার্পোট এবং সার্ভিস দেয় কি না সেটি অবশ্য বলাটা একটু কঠিন।

তবে এখন পর্যন্ত এদের সর্ম্পকে তেমন কোনো খারাপ কিছু শুনি নি। আশা করছি ভবিষ্যতেও তাদের সার্পোট ও সার্ভিসের মান একই রকম থাকবে ও দিনকে দিন আরো বৃদ্ধি পাবে।

ওয়েবসাইট: webhostbd.com

ফিচারঃ

  • ৯৯.৯% আপ টাইম গ্যারান্টি
  • ৫ জিবি থেকে ২০ জিবি স্টোরেজ
  • ৫০ জিবি থেকে ৮০০ জিবি ব্যান্ডউইথ
  • ১টি থেকে ২০টি অ্যাড-অন ডোমেইন
  • ফ্রি এস. এস. এল.
  • ফ্রি সাপ্তাহিক ব্যাকআপ
  • দেশীয় পেমেন্ট মেথড
  • ২৪/৭ কাস্টমার কেয়ার
  • ৩০ দিনের মানিব্যাক গ্যারান্টি
  • অত্যাধুনিক সি-প্যানেল

আমার পছন্দের ২টি সেরা ওয়েব হোস্টিং কোম্পানি

সত্যি কথা বলতে উপরে যাদের নাম উল্লেখ করেছি সবারই সার্পোট সার্ভিস আমার কাছে ভালো বলে মনে হয়েছে বিধায়ই তাদেরকে এখানে উল্লেখ করেছি।

তবে আমি জানি এতো কিছু বলার পরেও আসলে নতুনদের জন্য কোথা থেকে ওয়েব হোস্টিং নিলে ভালো হবে এই ধরনের একটি প্রশ্ন অবশ্যই তৈরি হবে। তাই এদের মধ্যে থেকে ১টি ইন্টারন্যাশনাল ও একটি দেশীয় ওয়েব হোস্টিং কোম্পানীর কথা আমি নিচে বলছি।

HostGator (হোস্টগেটর)

আমি জানি, অনেকেই এখন আমাকে প্রশ্ন করে বসবেন যে মার্কেটে বর্তমানে ট্রেন্ডে থাকা GoDaddy আর Namecheap এর কথা তো আমি আমার এই পোস্টে তো বললামই না; উপরন্তু সেরা ওয়েব হোস্টিং হিসেবে এমন একটা কোম্পানীকে আমি সাজেস্ট করছি যে কি না এখন বর্তমানে অনেকটা মৃতপ্রায় বলা চলে।

আপনার কথা আমি একবারে উড়িয়ে দিচ্ছি না। তবে বিশ্বাস করবেন কি না জানি না, GoDaddy কিংবা Namecheap – এদের কোনোটাই একটি ওয়েব হোস্টিং কোম্পানী হিসেবে আমার কাছে ভালো লাগে নি।

এদের ডোমেইন নিয়ে আমার কি মতামত সেটা না হয় আরেকদিন আরেক পোস্টে জানাবো; কিন্তু ওয়েব হোস্টিংটি সত্যিই আমাকে অনেকটা নিরাশ করেছে।

তবে সেই তুলনায় এককালের মার্কেট কাপানো হোস্টগেটর আমার কাছে ভালো লেগেছে। যদিও তাদের এখন আর আগের সেই জৌলুসটা নেই। তবে সার্পোট কিংবা সার্ভিসের দিক থেকে আমার কাছে এখনও তাদেরকেই ভালো লাগে।

যারা আমাকে ব্যক্তিগতভাবে কিছুটা চেনেন তারা আবার বলে বসবেন যে তাহলে স্যার আপনাকে তো প্রায় সময়ই সাইট গ্র্রাউন্ড এর প্রশংসা করতে শুনি। হঠাৎ করে আবার সেখান থেকে মুখ ফিরিয়ে নিলেন যে!

আসলে মুখ ফিরিয়ে নিই নি; নতুনদের জন্য ভালো জিনিসের পাশাপাশি আরেকটা ব্যাপারও মাথায় রেখেছি আর তা হলো ওয়েব হোস্টিং এর প্রাইজ।

তাই বলে আমি এটা বলছি না যে হোস্টগেটরের প্রাইজ সাইট গ্রাউন্ডের তুলনায় অনেক কম। তবে এতটুকু অন্তত বলতে পারি ভালো সার্ভিস, ফ্রেন্ডলী সার্পোট আর প্রাইজের দিক থেকে তুলনা করলে আপনিও হয়ত হোস্টগেটরকে আমার মতো সাইট গ্রাউন্ড এর চাইতে উপরে স্থান দিবেন।

ExonHost (এক্সনহোস্ট)

এক্সনহোস্ট এর নাম এখানে উল্লেখ করার পরে আমার ধারণা মতে ২ ধরনের মানুষ আমার প্রতি মন খারাপ করবেন। প্রথমত, যারা বহু আগে থেকে বাংলাদেশে ওয়েব হোস্টিং ব্যবসা করছেন ও আমাকে চেনেন এবং ক্ষেত্র বিশেষে প্রায় সময়ই তাদের হোস্টিং আমি ব্যবহার করেছি। দ্বিতীয়ত, বর্তমানে যারা এক্সনহোস্ট এর সার্ভিস নিয়ে খুব একটা সন্তুষ্ট নয়।

প্রথমজনদের কথা বলার আগে দ্বিতীয়জনদের কথা আগে বলা প্রয়োজন। আসলে এক্সনহোস্ট এর বর্তমান সার্পোট সার্ভিস নাকি কিছুটা নিম্নমুখী সে খবর আমার কানেও এসেছে কিন্তু এক্সনহোস্ট এর ম্যানেজমেন্ট যে বিষয়টি নিয়ে কতোটা চিন্তিত এবং তারা যে কতোটা কাজ করে যাচ্ছেন এই ধরনের সমস্যাগুলো সমাধান করার জন্য তা আসলে এদের সাথে পরিচয় না থাকলে জানাটা সহজ ছিল না।

আমার ধারনা কিছুদিনের মধ্যেই তারা তাদের এই ধরনের সকল সমস্যা কাটিয়ে উঠতে সক্ষম হবেন। বহুদিন ধরে ভালো সার্পোট ও সার্ভিস দিয়ে আসার পরে হঠাৎ করে কিছুদিনের খারাপ সার্ভিস এর জন্য একটা কোম্পানীকে যাচ্ছে-তাই বলাটা আসলে ঠিক নয়।

এবার আসি প্রথমজনদের কথায়। আসলে একটা কথা আমি একবারে উড়িয়ে দিচ্ছি না যে আমার জানা মতে এক্সনহোস্ট বাংলাদেশের একদম প্রথমদিকের কোনো ওয়েব হোস্টিং কোম্পানী নয়।

তবে গত কয়েক বছরে তাদের যে পরিমাণ সার্পোট এবং সার্ভিস দেখেছি সেটি সত্যিই প্রশংসার দাবি রাখে। তাই অনেকটা বাধ্য হয়েই এক্সনহোস্টকে আমার দেশীয় হোস্টিং কোম্পানীগুলোর মধ্যে সেরা বলতেই হচ্ছে।

সারসংক্ষেপ

আন্তর্জাতিক তথা দেশীয় যে কোন হোস্টিং সার্ভিস প্রোভাইডার হোক না কেন, নিরবিচ্ছিন্ন সার্ভিস গ্রাহকদের একান্ত কাম্য। তাই সবার ই উচিত কম বাজেটের হোস্টিং সেবার চেয়ে ভালো সার্ভিসের দিকে দৃষ্টি দেওয়া উচিত।

ওয়েবসাইট সর্বদা সচল থাকা, কম সময়ে লোড হওয়া এবং ভালো সিকিউরিটি ব্যবস্থা সব গ্রাহকের একান্ত চাহিদা থাকে। তাই খারাপ সার্ভিস এড়িয়ে বাজারের সেরা ওয়েব হোস্টিং সার্ভিসই প্রাথমিক নির্বাচন হওয়া উচিত।

About Md Faruk Khan

আমি মো ফারুক খান, ফাউন্ডার এবং সিইও খান আইটি। যদিও এর আগেও আমার একটি পরিচয় আছে, আমি একজন এসইও এবং অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং ট্রেইনার। আমি এখন পর্যন্ত বিআইটিএম, বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল, পেন্সিলবক্স ট্রেনিং এবং টেকনো বিডি ছাড়াও আরো অনেক প্রতিষ্ঠানে ট্রেনিং করিয়েছি। আমার মোট ছাত্র-ছাত্রী সংখ্যা ৩০০০+ এছাড়াও আমি ওয়ালটন, হাতিল ফার্নিচার, কেয়া, ইফাদ গ্রুপ এবং ইসলামী ব্যাংক সহ ১০০+ দেশী-বিদেশী প্রতিষ্ঠানের জন্য ডিজিটাল মার্কেটিং এর বিভিন্ন সেবা দিয়ে যাচ্ছি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *